লক্ষ্মীপুরে বৈশাখী মেলার নামে জুয়ার আসর রুখে দিল জনতা - সূর্য উদয়


লক্ষ্মীপুরে বৈশাখী মেলার নামে জুয়ার আসর রুখে দিল জনতা

0

লক্ষ্মীপুরে বৈশাখী মেলার নামে জুয়ার আসর
রুখে দিল জনতা

আব্দুল মালেক নিরবঃ-
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে বৈশাখী মেলার নামে আয়োজিত জুয়ার আসর রুখে দিল স্থানীয় আমজনতা। জানা গেছে, উপজেলা প্রশাসনের অনুমতির দোয়াক্কা না করে ভাটরা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বাংলার ঐতিহ্যবাহী এ মেলার নামে দীর্ঘ কয়েক বছর যাবত অশ্লীল নৃত্য, জুয়ার আসর, হাউজি খেলা, ফিতাটানা, চর্কা ঘুরানোসহ সব ধরনের বেহায়াপনা চলছিল। এ মেলাকে কেন্দ্র করে চুরি-ডাকাতি, ছিনতাই ও ইভটিজিংয়ের মতো ঘটনা অহরহ ঘটছে বলে জানা গেছে। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও সাত দিনব্যাপী এ মেলার আয়োজন করে স্বার্থান্বেষী একটি মহল। তবে এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে স্থানীয় জনসাধারণের সচেতনতামূলক ভূমিকা ও তীব্র প্রতিবাদের মুখে এ বছর মেলা বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয় আয়োজক কর্তৃপক্ষ ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রামগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই ভাটরা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দীর্ঘ কয়েক বছর যাবত পহেলা বৈশাখে মেলার আয়োজন করা হয়। এ মেলায় জুয়ার আসর ও অশ্লীলতাকে পুঁজি করে রমরমা ব্যবসা করে আসছে একটি স্বার্থান্বেষী মহল। অন্যদিকে মেলা হয়ে ওঠে মাদকসেবীদের অভয়-আরণ্য। মেলাকে ঘিরে এলাকায় বাড়তে থাকে চুরি-ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের মতো ঘটনা। মেলায় আগত গ্রামের সহজ-সরল মেয়েদের নানাভাবে উত্যক্ত করা হয়। স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ পরিচালনায় চলে জুয়ার আসর, হাউজি খেলা, ফিতাটানা, চর্কা ঘুরানো ও অশ্লীল নৃত্যু।

গত ১৩ এপ্রিল শুক্রবার জুমার খোতবায় এসব অশ্লীলতা ও সামাজিক অবক্ষয়ের বিষয়ে ইসলামের বিধান আলোচনা করেন ভাটরা জামে মসজিদের ইমাম জয়নাল আবেদীন। এরপর স্থানীয় জনসাধারণ বৈশাখী মেলার নামে বেহায়য়াপনার আসর বর্জন করতে উদ্যোগী হয়। অবশেষে প্রতিবাদী জনতার তোপের মুখে পড়ে বাধ্য হয়ে জুয়ার আসর বন্ধ করে দেয় ওই স্বার্থান্বেষী মহল।

রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আবু ইউসূফ বলেন, ভাটরা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বৈশাখী মেলা বসানোর কোনো অনুমতি নেই। গত দুই বছর আগে অনুমতি নিলেও জুয়ার আসর বসানোর কারণে তখন মেলা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

ভাটারা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, নববর্ষ উদযাপন ও বৈশাখী মেলা বাঙালির ঐতিহ্য। এটি আমাদের প্রাণের উৎসব। তবে এ মেলার নামে জুয়ার আসর ও যেকোনো ধরনের অশ্লীলতা বর্দাস্ত করা হবে না।

জেলার রায়পুর উপজেলার কাফিলাতলী, খাসেরহাট, আখন্দ বাজারসহ বেশ কয়েকটি স্থানে বৈশাখী মেলার নামে জুয়ার আসর বসানো হয়েছে বলে জানা যায়।

Share.

Leave A Reply

Translate »